স্বাস্থ্যকর এবং আরামদায়ক পরিবেশে, দীর্ঘমেয়াদি আবাসিক চিকিৎসায় নিশ্চিত করা হয় ২৪ ঘণ্টা ব্যাপী নিরবিচ্ছিন্ন সেবা  সুবিধা। আচরণগত শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনে থেরাপি ভিত্তিক ট্রিটমেন্ট আমাদের অন্যতম জনপ্রিয় এবং কার্যকরী আবাসিক প্রোগ্রাম। ৪ মাস মেয়াদি প্রোগ্রামটি মাদক ও বিভিন্ন ড্রাগসে আসক্তদের চিকিৎসার জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা। এতে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে ব্যক্তির পুনঃ সামাজিকীকরন প্রক্রিয়ায় ; যেখানে, ভিন্ন সামাজিক প্রেক্ষাপটসহ  ট্রিটমেন্টের কার্যকরী উপাদান হিসেবে অন্যান্য রোগী, আমাদের কর্মী- স্বেচ্ছাসেবকগণ  উৎসাহ-উদ্দীপনা দিয়ে সক্রিয় ভূমিকা রাখে। মাদকাসক্তিকে রোগীর সামাজিক ও শিক্ষাগত সক্ষমতার ক্রমাগত ঘাটতির কারণ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে, তাই এর চিকিৎসায়  আসক্তি নির্মূলসহ ব্যক্তির মধ্যে দায়িত্ব-কর্তব্যবোধ সৃষ্টি এবং স্বাভাবিক জীবনযাপন সক্ষমতায় জোর দেয়া হয়।  সম্পূর্ণ থেরাপি ও কাউন্সেলিং পরিকল্পনা অত্যন্ত কাঠামোগত এবং কার্যকরী ফলাফলের জন্য অনেক ক্ষেত্রে অনমনীয়। এতে অন্তর্ভুক্ত কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে রোগীর  নিম্ন মনোবল, অসামাজিক আচরণ, ঘৃণা-আত্মহননের মত ধ্বংসাত্মক অনুভূতির মাত্রা পরীক্ষা করা এবং পরিবর্তে সুসংগত, ব্যক্তিত্বপূর্ণ আচরণ ও গঠনমূলক উপায়ে মেলামেশা, সামাজিকতা-সম্পর্ক তৈরিতে ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ দেয়া।

আমাদের বিশেষ ওয়ান-টু-ওয়ান কাউন্সেলিং সেবায় শুধু ড্রাগস নেয়া বন্ধ করা বা এর ব্যবহার কমানোতে জোর দেয়া হয়না বরং ব্যক্তির মাদকাসক্তির সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত অন্যান্য বিষয় যেমন, তার পেশাগত অবস্থান, অবৈধ কার্যকলাপ, পারিবারিক-সামাজিক সম্পর্ক অর্থাৎ পুনরুদ্ধার প্রোগ্রামের বিষয়বস্তু এবং কাঠামো অনুসারে সেবা দেয়া হয়। এ প্রোগ্রামের লক্ষ্য যদিও রোগীর স্বাভাবিক আচরণ,ব্যবহারের  স্বল্পমেয়াদী উন্নয়ন করা, তথাপি, বিশেষায়িত কাউন্সেলিং সেবা  রোগীকে মাদক ব্যবহারে সংযত থাকা এবং আসক্তি নিয়ন্ত্রনে কৌশল  উন্নয়নে সাহায্য করে থাকে।