আমার হোম ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে মাদকাসক্তদের সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে দিতে কাজ করে যাচ্ছে। আমার হোম’  আমাদের ক্লায়েন্টদের কাছে আজ আস্থা ও নির্ভরতায় অন্যতম সহায়ক। এই দীর্ঘ সময়ে আমরা ৫০০’র ও বেশি রোগীকে সাফল্যর সাথে মাদকাসক্তি থেকে মুক্ত করেছি এবং সক্ষম, আত্মনির্ভরশীল ব্যক্তি হয়ে নতুনভাবে জীবন শুরু করতে সাহায্য করেছি। আমাদের একাগ্র সেবা, প্রত্যেক ক্লায়েন্টের প্রতি নিবিড় মনোযোগ ও পরিচর্যা আমাদের পরিচিত করেছে অনন্য বিশ্বাসযোগ্য রিহ্যাব।

আমরা মাদকাসক্ত ব্যক্তিকে স্রেফ রোগী নয়, বরং আমার হোম’  পরিবারের সদস্য হিসেবে গণ্য করি। আন্তরিক সেবা, শ্রদ্ধা ও সম্মানের সাথে ব্যক্তিকে উদবুদ্ধ করি মাদকাসক্তি ছেড়ে স্বাভাবিক জীবন শুরু করতে। কঠোরভাবে মান নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে আমাদের কর্মীদল বাছাই করা হয়। উপযুক্ত প্রশিক্ষন, দক্ষতা  এবং মানসম্পন্ন শিক্ষার ফলে অভিজ্ঞ কর্মীরা যেকোনো পরিস্থিতি দক্ষভাবে সামলাতে সক্ষম। তারা জানে,সংবেদনশীল রোগীদেরকিভাবে নিয়ন্ত্রন করতে হয়। আমাদের প্রধান চিকিৎসা পরিকল্পনার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত আছে;

  • মাদকাসক্ত ব্যক্তি এবং তার পরিবারের সাথে আলাদাভাবে ওয়ান- টু-ওয়ান কাউন্সেল সেশন।

  • মাদক নির্ণয়ের জন্য রক্ত পরীক্ষার ব্যবস্থা।

  • দীর্ঘমেয়াদি আবাসিক চিকিৎসা সুবিধা।

  • স্বল্পমেয়াদী অনাবাসিক কাউন্সেলিং।

  • চিকিৎসা পরবর্তী ফলোআপ সেশন।

  • নতুন জীবনের জন্মদিন পালন।

আমাদের কাছে প্রথমবার  সেবা নিতে আসা প্রত্যেক রোগীর যাবতীয় সমস্যা সম্পর্কে জানার জন্য আমরা মাদকাসক্ত ও তার পরিবারের জন্য কাউন্সেলিং এর ব্যবস্থা  করি। এক্ষেত্রে,  রোগীর মাদকাসক্তির কারণসম্পর্কে আরো ভালভাবে জানার জন্য উভয় পক্ষের সাথে আলাদাভাবে আলোচনা করা হয়। ব্যক্তির আসক্তির মাত্রা এবং শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে থেরাপির সময়কাল ও আনুষঙ্গিক চিকিৎসা পরিকল্পনা  নির্ধারণ করা হয়।আমরা বিশ্বাস করি, যথোপযুক্ত পরিচর্যার মাধ্যমে ব্যক্তি এ সর্বগ্রাসী অভিশাপ থেকে নিজেকে মুক্ত করতে পারে এবং, অল্প সময়ের মধ্যে সুস্থ স্বাভাবিক ভাবে জীবন যাপন করতে সক্ষম হয়।

ক্লায়েন্টকে ভর্তি করার আগে মাদকের মাত্রা নির্ণয় করার জন্য আমরা রক্ত পরীক্ষার ব্যবস্থা করি। এর ফলে প্রথম অবস্থায় রোগীর জন্য উপযোগী ও কার্যকরী ট্রিটমেন্ট নিশ্চিত করা হয়। কাউন্সেলিং সেশন ও রক্ত পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনা করে আমরা  ক্লায়েন্টের জন্য আবাসিক বা অনাবাসিক চিকিৎসা, থেরাপির নির্দেশনা দেই। আমাদের দীর্ঘস্থায়ী আবাসিকসেবা সুবিধা ৪ মাস ব্যাপী; এতে আমরা নিশ্চিত করি কোলাহলমুক্ত, আরামদায়ক গৃহ পরিবেশে ২৪ ঘণ্টা নিরবিচ্ছিন্ন সেবা ও থেরাপি। এ ব্যবস্থা পুনরায় সামাজিকীকরণে ক্লায়েন্টকে সাহায্য করে থাকে।

এবং ক্লায়েন্টদের ভঙ্গুর মানসিক অবস্থায় সামাজিক জীবনযাপনে আমরা কখনোই তাদের একাকী ছেড়ে দেইনা। অনাবাসিক এবং আউট পেশেন্টদের জন্য  আমার হোম’ এ রয়েছে দীর্ঘ মেয়াদি ফল-আপ সেশন। আমাদের বিশেষজ্ঞরাকাউন্সেলিং, থেরাপির মাধ্যমে আউট পেশেন্টদের আসক্তির মূল কারণ নির্ণয় ও তা নির্মূল করায় প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিয়ে থাকে। এই ধরনের ফলো-আপ স্বল্পমেয়াদী এবং যথেষ্ট ফলপ্রসূ।

এছাড়া, সার্বিক পর্যবেক্ষণের জন্য আমাদের আফটার-কেয়ার নামেও আলাদা মনিটরিং সিস্টেম রয়েছে। এক্ষেত্রে, চিকিৎসা শেষ হওয়ার পর  থেকে আমরা ক্লায়েন্টের জন্য নিয়মিত ফলো-আপ সেশনের ব্যবস্থা করি যাপরবর্তী কয়েক বছর পর্যন্ত চলতে থাকে।

নতুন জীবনের  জন্মদিবস উদযাপন’ নামে ব্যক্তির জন্য আমাদের পক্ষ থেকে একটি চমৎকার ও ব্যতিক্রমী উৎসবের আয়োজন করা হয়। এ জন্মোৎসব উদযাপনে আমাদের পুরানো ক্লায়েন্টরা  তাদের নতুন জীবনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করে থাকেন। এধরনের ইতিবাচক কথাবার্তা, আলাপ-আলোচনারফলে ব্যক্তি আসক্তি থেকে মুক্ত হওয়ার অনুপ্রেরনা লাভ করে।

হোম সিকনেস থেকে মুক্তি দেয়ার উদ্দেশ্য আমার হোম’ এ সবসময় নিরুপদ্রব, ইতিবাচক বাড়ির পরিবেশ বজায় রাখা হয়। নিয়মিত কাউন্সেলিং করে মাদক্মুক্ত হাসিখুশি জীবন যাপনে আমরা রোগী ও তার ফ্যামিলিকে মোটিভেশনের মাধ্যমে উৎসাহ উদ্দীপনা দিয়ে থাকি।

সততা, নিষ্ঠা ও বিশ্বাসযোগ্যতা আমাদের পেশাগত সাফল্যর মূল চাবিকাঠি। আমরা আমাদের ক্লায়েন্টদের প্রতি সবসময় বিশ্বস্ত এবং আপনার ব্যক্তিগত তথ্যর গোপনীয়তা নিশ্চিতে অঙ্গিকারবদ্ধ। আমরা ক্লায়েন্টদের শুধু থেরাপি দেইনা  বরং যথোপযুক্ত পরিচর্যা ও সম্মানের সাথে সেবা প্রদান করি। যা আমাদের করেছে ক্লায়েন্টদের নিকট নির্ভরযোগ্য এবং বাংলাদেশের অন্যতম সেরা রিহ্যাব প্রতিষ্ঠান।